আজ || মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২
শিরোনাম :
  গোপালপুরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে হামলা, ভাংচুর ও লুটের অভিযোগ       গোপালপুরে নিষিদ্ধ জালে আগুন       মাদার তেরেসা এ্যাওয়ার্ড পেলেন কলেজ শিক্ষক নূর নবী       ৮টা-৩টা অফিস; গোপালপুরে অধিকাংশ সরকারি অফিস ছিল তালাবদ্ধ       গোপালপুর থানা প্রাঙ্গণে লাশ রাখার ঘর উদ্বোধন       গোপালপুর পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের পতাকাদন্ড আম পাড়ার কোটা       অবশেষে উচ্ছেদ করা হলো গোপালপুরের সেই ৪টি অবৈধ সেচপাম্প       রাজা যায়, রাজ্যের মানচিত্রও বদলায়, টিকে থাকে মোসাহেব, চাটুকার ও চামচা       জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি গোপালপুর থানার মোশারফ হোসেন       বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে গোপালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন    
 


গোপালপুরে কোরবানির পশু বিক্রি নিয়ে বিপাকে খামারিরা

কে এম মিঠু, গোপালপুর:
করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকারি কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে আসন্ন ঈদুল আজহার কোরবানির জন্য প্রস্তুত করা পশু বিক্রি নিয়ে বিপাকে পড়েছেন গোপালপুর উপজেলার খামারিরা।
সর্বাত্মক লকডাউনে কোরবানীর হাট বন্ধ থাকায় এলাকার বেশিরভাগ খামারি তাদের পালিত পশু বিক্রি করতে পারেননি।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আবু হানিফ বলেন, এ বছর গোপালপুর উপজেলায় চার শতাধিক খামারে পাঁচ হাজার গরু ছাগল কোরবানির জন্য প্রস্তুত রয়েছে। যদিও বেসরকারি তথ্যমতে, এর পরিমাণ দ্বিগুণের বেশি। ঈদ উপলক্ষ্য প্রতিবছর খামারি ও কৃষকের বাড়ি থেকেই বেশিরভাগ পশু বিক্রয় হয়ে থাকে। এবার ঈদের দু’সপ্তাহ বাকি থাকলেও পশু বিক্রয় করতে না পেরে অনিশ্চয়তায় দিন কাটাচ্ছেন তারা।

বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এবার অধিকাংশ খামারি এখন পর্যন্ত বেপারি কিংবা সাধারণ ক্রেতাদের দেখা পাচ্ছেন না। কয়েকজন খামারি বলেন, তারা ঋণের টাকায় গরু কিনে পালন করছেন। করোনার ভয়াবহতা বেড়ে যাওয়ায় তারা আতঙ্ক আছেন।

উপজেলার সুতী নয়াপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলাম, ভুটিয়া গ্রামের শেখ ফরিদসহ সাধারণ খামারিরা জানিয়েছেন, যেভাব করোনার ঢেউ চলছে, তাতে কীভাবে পশুগুলো বিক্রি করবেন তা নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন। উপজেলার একাধিক খামার গিয়ে দেখা যায়, সেখান অনেক গরু রয়েছে। যার বেশিরভাগই অবিক্রীত।

মন্তব্য করুন -


Top
error: Content is protected !!