আজ || মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১
শিরোনাম :
 


গোপালপুরে মসজিদে ক্যালেন্ডার লাগানো কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, কারাগারে ৫

গোপালপুর বার্তা ডেক্স :
টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার আলমনগর ইউনিয়নের বয়ড়াপাড়া মসজিদে ক্যালেন্ডার লাগানোকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মারামারিতে চারজন আহত হয়েছে।

এ ঘটনায় থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ উভয় পক্ষের পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে আসামিদের কারাগারে পাঠিয়েছে।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বয়ড়া উত্তরপাড়া মসজিদ কমিটির সঙ্গে বয়ড়া দক্ষিণপাড়া মসজিদ কমিটির দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। গত ১৩ এপ্রিল বিকেলে বয়ড়া উত্তরপাড়া মসজিদ কমিটির লোকজন বয়ড়া দক্ষিণপাড়া মসজিদে গিয়ে ইমামের নামাজের স্থানের পাশে একটি ক্যালেন্ডার টাঙান। মসজিদ কমিটির লোকজন বাধা দেওয়ার পরও তারা ক্যালেন্ডার টাঙিয়ে চলে যান।

পরে আলমনগর বয়ড়া দক্ষিণপাড়া মসজিদ কমিটির লোকজন ক্যালেন্ডারটি মসজিদের বারান্দায় নিয়ে টাঙিয়ে রাখেন। পরদিন বুধবার বিকেলে বয়ড়া উত্তরপাড়া মসজিদ কমিটি লোকজন ক্যালেন্ডারটি বারান্দায় দেখে বয়ড়া দক্ষিণপাড়া মসজিদে থাকা লোকজনদের গালিগালাজ করতে থাকেন।

এ সময় আশরাফুল আলম ইয়াসিন নামে এক যুবক তাদের বাধা দিলে বয়ড়া উত্তরপাড়া মসজিদ কমিটির লোকজন হাতুরি, রড, বাঁশের লাঠি নিয়ে আশরাফুল আলম ইয়াসিনসহ মসজিদের মুসল্লিদের ওপর হামলা করেন। এতে আশরাফুল আলম ইয়াসিনসহ চারজন আহত হন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় বয়ড়া দক্ষিণপাড়ার তোরাপ আলী বাদী হয়ে আলমনগর বয়ড়া মধ্যপাড়ার হায়দার আলী (৪৫), হায়দার আলী ছেলে মো. জাহিদ (২১), নস্কর আলীর ছেলে সুমন মিয়া (২২), মোশারফ হোসেনের ছেলে আশরাফ আলী (২২), মোজাফফর আলী ছেলে মো. সাইফুল (২৬), হযরত আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম (৪৫) ও আকবর, ঠান্ডুর ছেলে সোহাগ (২১), আবু সাইদ (৩৮), বাদশা (৪২), রশিদের ছেলে আমিনুলসহ (২৮) অজ্ঞাত আরও ১২-১৩ জনকে আসামি করে গতকাল বৃহস্পতিবার গোপালপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে আলমনগর বয়ড়া উত্তরপাড়া মসজিদ কমিটির নিজাম বাদি হয়ে বয়ড়া দক্ষিণপাড়া মসজিদ কমিটির লোকজনকে আসামি করে অপর একটি মামলা দায়ের করেন।

বয়ড়া দক্ষিণপাড়ার বাসিন্দারা জানান, হাফেজ আমানউল্লাহ উস্কানিতে দীর্ঘদিন ধরে বয়ড়া উত্তরপাড়া মসজিদ কমিটির সঙ্গে বিরোধ চলে আসছে। উস্কানির কারণেই আলমনগর দক্ষিণপাড়া মসজিদ ও মাদ্রাসা থেকে ভাগ হয়ে যায় আলমনগর উত্তরপাড়া।

বয়ড়া উত্তরপাড়া মসজিদ কমিটির সভাপতি শমসের আলী মাস্টার বলেন, ‘ক্যালেন্ডার ছেড়াকে সংঘর্ষ হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে মিমাংসার দাবি জানাই।’

গোপালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে থানায় পাল্টাপাল্টি দুটি মামলা হয়েছে। মামলার পর আলমনগর বয়ড়া উত্তরপাড়া মসজিদ কমিটির শামীম, আমানউল্লাহ ও আমিনুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আরেকটি মামলায় আলমনগর বয়ড়া দক্ষিণপাড়া মসজিদ কমিটির দুইজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’

  • 1.3K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1.3K
    Shares

মন্তব্য করুন

কমেন্ট করেছে


Top
error: Content is protected !!