গোপালপুর আজ , সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯ ইং |


গোপালপুরসহ উত্তর টাঙ্গাইলে বিদ্যুৎ বিপর্যয়, নিদারুন দুর্ভোগে গ্রাহক

২৪ ঘন্টায় ২ ঘন্টা, কোথাও দু’দিনে একবার বিদ্যুৎ সরবরাহ

258

 কে এম মিঠু, গোপালপুর (টাঙ্গাইল) :

 গ্যাস সংকটের দরুন ময়মনসিংহ আরপিসিএলের উৎপাদণ এক তৃতীয়াংশে নেমে আসায় টাঙ্গাইল, জামালপুর ও শেরপুর জেলায় পল্লী বিদ্যুতের প্রায় ১০ লক্ষ গ্রাহক নিদারুন দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। উত্তর টাঙ্গাইলের পাঁচ উপজেলার পল্লী বিদ্যুতের প্রায় দুই লক্ষ গ্রাহক চব্বিশ ঘন্টায় ২ ঘন্টার বেশি বিদ্যুৎ পাচ্ছেনা। গোপালপুর উপজেলার দেড়শত গ্রামের মানুষ সপ্তাহে মাত্র দুদিন তিনচার ঘন্টা করে বিদ্যুৎ পাচ্ছে। ক্ষুব্দ গ্রাহকরা প্রায়ই প্রতি দিনই সড়ক অবরোধ, অফিসে হামলা, ভাংচুর, স্টাফদের মারপিট এবং অফিসে তালা দেয়ার ঘটনা ঘটাচ্ছে।

জানা যায়, জামালপুর পিডিবির সাবষ্টেশন থেকে উত্তর টাঙ্গাইল, জামালপুর ও শেরপুর জেলার পল্লী বিদ্যুতের প্রায় ১০ লক্ষ গ্রাহকদের মধ্যে বিদ্যুৎ বিতরণ করা হয়। এ এলাকায় লোড চাহিদা ১০৫ থেকে ১১০ মেঘাওয়াট। ময়মনসিংহ আরপিসিএল এ উৎপাদিত বিদ্যুৎ দিয়ে এ এলাকার চাহিদা মেটানো হয়। কখনো বেশি লোড অনুভূত হলে আশুগঞ্জ-ময়মনসিংহ গ্রিড লাইন থেকে বিদ্যুৎ আনা হয়। ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যৎ সমিতি-১ এর জেনারেল ম্যানেজার আব্দুর রশীদ মৃধা জানান, ময়মনসিংহের শম্বুগঞ্জে গ্যাসের চাপ কম থাকায় ময়মনসিংহ আরপিসিএল ২১০ মেঘাওয়াটের স্থলে উৎপাদণ করছে মাত্র ৭০ মেঘাওয়াট। পিডিবির জামালপুর গ্রিড সাব স্টেশনের বিদ্যুৎ নিয়ে জামালপুর ও শেরপুর জেলাসহ টাঙ্গাইলের পাঁচ উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। জামালপুর পিডিবি জানায়, ময়মনসিংহ আরপিসিএল থেকে কখনো চাহিদা মত বিদ্যুৎ পাওয়া না গেলে বিকল্প আশুগঞ্জ থেকে ন্যাশনাল গ্রিডের মাধ্যমে বিদ্যুৎ পাওয়ার কথা। কিন্তু পিডিবির জামালপুর-ময়মনসিংহ বিদ্যমান ন্যাশনাল গ্রিডের ফিডার সার্কিট সিঙ্গেল হওয়ায় আশুগঞ্জ থেকে বিদ্যুৎ আনা সম্ভব হচ্ছেনা। এমতাবস্থায় টাঙ্গাইলের গোপালপুর, মধুপুর, ধনবাড়ি, ভূঞাপুর, ঘাটাইল উপজেলার দুই লক্ষাধিক পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহক বিগত ৬ মাস ধরে দৈনিক তিনচার ঘন্টার বেশি বিদ্যুৎ পাচ্ছেনা। বিশেষ করে গোপালপুর উপজেলার হাদিরা, ঝাওয়াইল ও হেমনগর এবং ধনবাড়ি উপজেলার বলিভদ্র, মুশুদ্দী ও পাইস্কা ইউনিয়নের গ্রাহকরা সপ্তাহে দুদিন তিনচার ঘন্টা করে বিদ্যুৎ পাচ্ছে। পল্লী বিদ্যুতের গোপালপুর, মধুপুর ও ধনবাড়ি জোনাল অফিস এ নজীরবিহীন সংকটের কথা স্বীকার করে জানায় ক্ষুব্দ গ্রাহকদের হামলার আশঙ্কায় পল্লী বিদ্যুতের মাঠ কর্মিরা জরুরী কাজে এলাকায় যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। মধুপুর, গোপালপুর ও ধনবাড়ি উপজেলা শিল্প ও বণিক সমিতির নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেন, এতটা খারাপ সময় আগে কখনো পার করতে হয়নি। উত্তর টাঙ্গাইলের পাঁচ উপজেলার এ সমস্যা নিরসনে ঘাটাইল পিডিবি পর্যন্ত ন্যাশনাল গ্রিড লাইন সম্প্রসারণের দাবি জানান।

Comments

comments


Top