গোপালপুর আজ , শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০১৯ ইং |


ধনবাড়ীতে বিয়ে ভাঙ্গার অভিযোগে বস্তায় ভরে প্রেমিককে নদীতে নিক্ষেপ

প্রেমের টানে চাঁদপুর থেকে টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী

নিজস্ব সংবাদাতা : সুদূর চাঁদপুর থেকে টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলায় এসে প্রেমিকার বিয়ে ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগে উতাল প্রেমিককে বস্তায় ভরে নদীতে ফেলার ঘটনা ঘটে। ভাগ্যক্রমে এলাকাবাসিরা দেখা ফেলায় জানে বেঁচে গেছে ওই প্রেমিক।

জানা যায়, চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার ওয়ারুফ গ্রামের মোখলেছুর রহমানের ছেলে নাসির উদ্দীন বগুড়া মেডিক্যাল কলেজে মেডিক্যাল এসিস্ট্যান্ট কোর্সে পড়াশোনা করার সময় সহপাঠি ধনবাড়ি উপজেলার পানকাতা গ্রামের বেলায়েত হোসেনের কণ্যা দিপি আক্তারের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

ধনবাড়ী থানা পুলিশ জানায়, ঢাকায় একটি ওষুধ কোম্পানিতে চাকরি করা দিপি গত বৃহস্পতিবার বাড়ি এলে তার অমতে পরিবার সরিষাবাড়ি উপজেলার পঞ্চাশি গ্রামে বিয়ে ঠিক করেন। প্রেমিক নাসির মোবাইলে খবর পেয়ে চাঁদপুর থেকে গত ২১ জুলাই শুক্রবার সন্ধ্যায় বিয়ে বাড়িতে হাজির হন। বরযাত্রীদের জানান তাদের দুজনের সম্পর্কের কথা। ফলে বিয়ে ভেঙ্গে যায়। এতে কণে পক্ষ চটে যায়। দিপির ভগ্নিপতি আসাদুজ্জামান মিল্টন, চাচাত ভাই মানিক মিয়া, হাকিমুল ইসলামসহ ৬/৭জন নাসিরের উপর চড়াও হয়ে বেদম পিটুনি দেয়। রাতে প্রেমিক নাসিরকে বস্তায় ভরে ঝিনাই নদীতে ফেলার সময় স্থানীয় লোকজন দেখে এগিয়ে আসে। তারা  নাসিরকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে। ধনবাড়ী থানা পুলিশ খবর পেয়ে গভীর রাতে খবর পেয়ে নাসিরকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠায়। শনিবার নাসির ধনবাড়ী থানায় বাদী হয়ে ৮জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করে। পুলিশ দিপির ভগ্নীপতিসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে টাঙ্গাইল জেল হাজতে পাঠায়।

Comments

comments


Top